ফিন্যান্সিং করে একটা বড় ধরনের আয়ের চিন্তা ছিল আমার অনেক আগে থেকে তাই আমি অনলাইনে কাজ করে একটা ভাল আয় করি। তবে বাসায় বসে কাজ করে আয় করার লড়াই ছিল আমার কিন্তু কয়েক মাস ধরে অবিচ্ছিন্নভাবে কাজ করার পরে, আমি আমার প্রথম $ ৯০০ ডলার ছাড়িয়েছি মাত্র দেড় বছরে। আমি গত তিন বছর ফিন্যান্সিংয়ে কাজ করে সর্বোচ্ছ মোট $ ৫০০০ ডলারেরও বেশি অনলাইনে ইনকাম করতে সফল হয়েছি।

আমি বাসায়র কাজের বাহিরে অন্যান্য অপশনগুলিতে অনলাইন এবং অফলাইন কাজের বিষয়ে অনেকগুলি রিসার্স করেছি এবং আমি জানি প্রচুর পরিমাণে বাসায় বসে সেরা কাজ সম্পর্কে কোনও বিনিয়োগ ছাড়াই অনলাইনে ইনকাম করা যায়। আমি এমন ২১ টি কাজের অনলাইন ইনকামের ওয়েবসাইট আপনাকে দেখাব যা আপনি বাড়ি থেকে বা অনলাইনে যে কোনও জায়গা থেকে করতে পারেন খুব সহজে।

বাসায় থেকে কাজ অনলাইনেঃ

২১টি কাজের সাইট থেকে সেরা কাজ

আমি বাসায় বসে থেকে সফলতার সাথে ফিন্যান্সিংয়ের কাজ করেছি, এই সুবিধাগুলো এখন নীচে দেয়া হল।

১. ব্লগিং। Blogging

যদিও আমি অনলাইন ব্লগিং করে $ ৩০০০ ডলার এরও বেশি অর্থ উপার্জন করি, তবে আমি এটিকে ৩ নম্বরে তালিকাভুক্ত করেছি কারণ প্রথম ২ টির কাজ খুব সহজে কাজ করতে পারে এবং যে কেউ বাসায় বসে থেকে ২ টিরও বেশি অনলাইন ফিন্যান্সিংয়ের কাজ করে অনেক অর্থ উপার্জন করতে পারি।

ব্লগিং। Blogging                                                                                

ফিন্যান্সিং করার জন্য আপনার ব্লগিংয়ে কঠোরভাবে পরিশ্রম করা দরকার এবং ব্লগিং থেকে আপনার প্রথম আয় পেতে ৩ থেকে ৫ মাস সময় লাগতে পারে কিন্তু আপনাকে আপনার দক্ষতাকে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে হবে।

আপনি যদি একটা ভাল আয়ের জন্য বাসায় বসে কাজ করতে চান তাহলে আপনি অনলাইন ফিন্যান্সিংয়ের জন্য একটা ভাল সাইট হল ব্লগিং। তবে ব্লগিং ছাড়া অন্য কোনও বিকল্প পথ নেই। আপনি এটিকে আপনি আপনার পার্ট টাইম বা ফুল টাইম হিসাবে কাজ করতে পারেন। আপনি যদি এটিতে কাজ করেন তাহলে আপনি বুজতে পারবেন এই ব্লগিং সম্পর্কে, আপনি খুব ভাল আয় করতে পারেন যা  অন্য ফিন্যান্সাররা পুরো সময়ের মধ্যেও তা  উপার্জন করতে পারেনা।

আপনি এই সাইটটিতে সাইন আপ করতে পারেন যাতে আমরা আপনাকে ধাপে ধাপে প্রশিক্ষণ প্রদান করতে পারি যা আপনি সহজেই বুঝতে পারেন যে কিভাবে আপনি অনলাইন ফিন্যান্সিং করেন এবং ব্লগিং শুরু করতে পারেন এবং এই সাইটটিতে কোনও রেজিস্ট্রেশন ফি নেইভে

২. ফাইবার। Fiverr এ কাজ

ফাইবার ফিন্যান্সার বাসার লোকদের থেকে সমস্ত কাজের জন্য ফাইভার সবচেয়ে জনপ্রিয়। আপনি ফাইভারে মাধ্যমে বিক্রয়কারী হয়ে উঠতে পারেন এবং শত শত বিভিন্ন জিনিস তৈরি করতে পারেন আপনার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে।

ফাইভারে কাজ করা অনেক সহজতর এবং কেবলমাত্র আপনাকে কিছু বিষয় দক্ষ হতে হবে যা আপনি ফাইভারে বাসায় বসে থেকে কাজ করতে পারেন। আমরা অনেক ফিন্যান্সারকে দেখেছি যারা বলেছিলেন যে, তাদের কোনও দক্ষতা নেই এবং ফাইভারে কাজ করার ধারণা নেই এখন তারা প্রতি মাসে ফাইভারে $ ২০০ ডলারেরও বেশি নগদ অর্থ উপার্জন করছেন।

ফাইভার আপনাকে রিছেলার/বিক্রেতা হিসাবে কাজ করতে সাহায্য করবে আমরা ফাইভার সম্পর্কিত একটি সম্পূর্ণ গাইড তৈরি করেছি এবং আপনার ক্লায়েন্টের কাছ থেকে আরও অর্ডার পাওয়ার কৌশলগুলি আমাদের কীভাবে সহায়তা করবে।

সাইনআপ

৩. অফলাইন এবং অনলাইন ডেটা এন্ট্রির কাজ। Offline & Online Data Entry Jobs

ডেটা এন্ট্রির কাজের জন্য আপনাকে নির্দেশাবলী অনুসারে বিষয়টি টাইপ করতে হবে এবং আপনি নির্দিষ্ট সময়সীমার আগে আপনার কাজটি কোম্পানিতে জমা দিতে হবে। এটি বাসায় বসে কাজ এ একটি আপনার জন্য অনেক সহজ কাজ এবং কোনও অতিরিক্ত যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতার প্রয়োজন দরকার হয় না।

এই কাজটি পেতে আপনাকে কোম্পানির অফিস থেকে কাজটি সংগ্রহ করতে হবে অন্যথায় কোম্পানি কুরিয়ার বা পোস্টের মাধ্যমে কাজটি ফরোয়ার্ড করবে আপনার সুবিদার জন্য। আমি কখনই কোনও ডেটা এন্ট্রি নিয়ে কাজ করি নায়, কারণ এটি কিবোর্ড টাইপিং স্পিডের সাথে সম্পর্কিত এবং আমার টাইপিং কাজের গতিও তেমন ভাল নয়।

আমি অনলাইনে ডেটা এন্ট্রি কাজ নিয়ে প্রচুর রিসার্স করেছি এবং বিভিন্ন ধরণের অফলাইন এবং অনলাইন ডেটা এন্ট্রি কাজ গুলি সম্পর্কে বুঝতে অনেক ফিন্যান্সারকে জিজ্ঞাসা করেছি। আমার ধারনার ভিত্তিতে আমি এখানে সেরা ডেটা এন্ট্রির কাজের জন্য একটি তালিকা তৈরি করেছি। আপনি যদি কোনও বৈধ ডেটা এন্ট্রি  কোম্পানির সাথে কাজ করেন তবে আপনি একটি প্রচুর পরিমাণে নগদ অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

৪. ক্যাপচা কাজ। Captcha Work

ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপনি অনলাইনে ক্যাপচা এন্ট্রি কর্মীর বিশাল চাহিদা রয়েছে। ক্যাপচা এন্ট্রি কর্মী হিসাবে, আপনি বাসায় থেকে অনলাইনে ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ করতে পারবেন এবং মাসে $ ২০০ ডলার নগদ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।

অনলাইনে ফিন্যান্সিংয়ের জন্য কয়েকটি সেরা সাইট রয়েছে যা ১০০০ ক্যাপচা টাইপ করার জন্য $ ১ ডলার থেকে $ ২ ডলার পরিশোধ করে। আপনি যদি বাসায় থেকে এই কাজটিতে আগ্রহী হন তবে আপনার ক্যাপচা সাইটগুলিতে সাইন আপ করুন এবং ক্যাপচা টাইপ করা শুরু করুন।

আপনি সেরা ১০টি ক্যাপচা সাইটের তালিকা চেক করতে পারেন।

ডেটা এন্ট্রি কাজের জন্য আপনি ৬ টি ভাল জায়গা খুঁজে পেতে পারেন।

৫. বাসা থেকে অনলাইন সার্ভের কাজ। Online Surveys from Home

এখনকার সময় প্রত্যেকে অনলাইন সার্ভের কাজ জানেন এবং তাদের বাসায় বসে থেকে অনলাইনে ফিন্যান্সিং কাজ করে কিছু বাড়তি আয় করতে চান। অনলাইন সার্ভের গৃহকর্মী/হোমমেকার, পার্ট-টাইমার, শিক্ষার্থী/স্টুডেন্ট বা অন্য যে কারও জন্য সেরা। আপনি ভাল সার্ভের সাইটগুলিতে সাইন আপ করতে পারেন এবং বিভিন্ন সার্ভের কাজ শেষ করে আপনারা অর্থ উপার্জন শুরু করতে পারেন।

আপনি যদি ভাল সার্ভের কাজের সাইটগুলিতে সাইন আপ করতে পারেন এবং বিভিন্ন অনলাইন সার্ভের কাজ শেষ করে নগদ অর্থ উপার্জন শুরু করতে পারেন। আমি বাসায় বসে অনলাইন সার্ভের কাজের সাইটগুলি থেকে প্রতি মাসে প্রায় ৫০০ ডলার নগদ অর্থ উপার্জন করি।

বিশ্বর সেরা ২১টি সার্ভে সাইটগুলি সন্ধান করুন এবং বাসায় থেকে এই অনলাইন কাজ সম্পর্কে আরও জানতে, তবে আপনি এই অনলাইন সার্ভের পোস্টটি চেক করতে পারেন।

নিশ্চিন্তভাবে এই প্রশিক্ষণ প্যাকেজ পেতে আপনি এখানে সাইন আপ করতে পারেন যেখানে আমি আপনাকে দেখাব যে আপনি কীভাবে বাসায় সার্ভে কাজ করে $ ৫০০০ ডলার নগদ অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

৬. বাসা থেকে লেখালেখির কাজ। Work from Home Writer

ফিন্যান্সিং করে অনেক আগেই আমি বিভিন্ন কোম্পানির লেখালেখির কাজ হিসাবে কাজ করেছিলাম এবং প্রতিমাসে আমার প্রায় $ ১০০০ ডলার আয় করেছিলাম। তবে পরে আমি আমার নিজের অনলাইন ব্লগের সাইটে লিখতে শুরু করি এবং প্রচুর নগদ অর্থ অর্থোপার্জন করি।

আমি জানি যে লেখালেখির কাজ হিসাবে অনলাইন ফিন্যান্সিংয়ে অর্থোপার্জনের বিভিন্ন উপায় আছে এবং সর্বোত্তম উপায় হ’ল অনলাইন ব্লগ লিখে। তবে আপনি যদি কেবল বাসায় লেখার কাজগুলিতে কাজের জন্য খোঁজ করেন তবে ইন্টারনেটে জগতে আপনি এটি সহজেই খুঁজে পেতে পারেন। আপনার কেবলমাত্র কিছু লেখার দক্ষতা জানা প্রয়োজন হবে।

আপনার অনলাইন ফিন্যান্সিংয়ের কাজের লেখার দক্ষতা না থাকলেও এমন অনেক কোর্স রয়েছে যা আপনাকে দক্ষ টাইপার করে তুলতে পারে। ফিন্যান্সিংয়ের মধ্যে হতে আপনি আপওয়ার্ক, ফাইভার, আইওয়াইটার ইত্যাদি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্স সাইটগুলিতে অনেকগুলি লেখালেখির কাজ পেতে পারেন আপনি প্রকৃত কাজের মতো পোর্টালে কাজ করেও ফ্রিল্যান্স লেখালেখির কাজ পেতে পারেন।

বিভিন্ন ধরণের অনলাইনে লেখালেখির কাজ রয়েছে যেমন ব্লগ এবং ওয়েবসাইটগুলির লেখালেখির জন্য, প্রুফরিডিং, অনুলিপি লেখা, একাডেমিক লেখা ইত্যাদি ৫০০ শব্দের লেখালেখির জন্য আপনি $ ৫ ডলার থেকে $ ২০ ডলার নগদ অর্থ উপার্জন করতে পারেন। আপনি যদি পার্ট টাইম অনলাইনে লেখালেখির কাজ করেন তবে আপনি দৈনিক কমপক্ষে মোট ১০০০ শব্দ লিখতে পারেন এবং যদি আপনি ফুল টাইম লেখালেখির কাজ করেন, তবে আপনি প্রতিদিন গড়ে ৩০০০ শব্দ লেখালেখি করতে পারেন।

৭. মাইক্রো-ওয়ার্কিং। Micro-working            

মাইক্রো-ওয়ার্কিংএটি বাসায় থেকে কাজ করে অনেক ফিন্যান্সার নগদ আয় করে। আর একটি জনপ্রিয় কাজ যেখানে আপনি বিভিন্ন ধরণের সাধারণ মাইক্রো-ওয়ার্কিংকাজ শেষ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

তবে এখন বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইট রয়েছে যা একটি মাইক্রো কাজ প্রদান করে। আপনি সেখানে একটি মাইক্রো-ওয়ার্কার হিসাবে সাইন আপ করতে পারেন এবং সরল মাইক্রো-ওয়ার্কিংকাজ যেমন কোনও চিত্র চিহ্নিতকরণ, ভিডিও দেখা এবং তুলনা করা, বাক্য বা অনুচ্ছেদ যেমন, ফেসবুক বা টুইটারের মতো ইত্যাদি করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

৮. বাসা থেকে (ভিএ) হিসাবে কাজ করুন। Work as VA from Home

বিশ্বের কয়েক মিলিয়ন ফিন্যান্সার বাসায় থেকে ভার্চুয়াল সহকারী (ভিএ) হিসাবে কাজ করছে এবং তাদের সময় এবং দক্ষতার উপর নির্ভর করে তারা খুব সহজেই ভাল আয় করে। অনলাইনে ফিন্যান্সাররা ভার্চুয়াল সহকারী হিসাবে কাজ করতে বিভিন্ন ধরণের ওয়েবসাইটে সাইন আপ করতে পারেন এবং অনলাইনে ভার্চুয়াল সহকারী হিসাবে কাজ করার জন্য তারা প্রতি ঘন্টা $ ৫ – $ ১০ ডলার চার্জ করতে পারেন।

কোম্পানি আপনাকে উল্লিখিত দক্ষতা এবং তাদের বাজেট অনুযায়ী আপনাকে ফি দেয় এবং আপনাদের উভয়ের মধ্যে নির্ধারিত হার অনুযায়ী আপনাকে অর্থ প্রদান করে থাকে। কিন্তু আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি ৪ ঘন্টা, ৮ ঘন্টা বা দিনে ফুল টাইম  কাজ করতে পারেন। অনলাইনে নগদ অর্থোপার্জন করার উপায়গুলিতে আপনি যদি এই পোস্টটি চেক করতে পারেন এবং ভার্চুয়াল সহকারী হিসাবে কাজ করতে পারেন।

৯. বাসা থেকে বাচ্চা দেখাশুনা। Babysitting from Home

আপনি যদি ছোট ছোট বাচ্চাদের পছন্দ করেন এবং তাদের দেখাশুনা করতে পারেন তবে আপনি নিজে বেবিসিটিংয়ের কাজ শুরু করতে পারেন। বাসায় থেকে এই কাজে আপনি বেশ কিছু ডলার নগদে আয় করতে পারেন।

তবে আপনার নিজের বাসায় বড় জায়গা থাকা উচিত যাতে করে আপনার পরিবারের সদস্যরা আপনার কাজের প্রতি বিরক্ত না হয়। আপনার আত্মীয় বা প্রতিবেশীদের বাচ্চাদের দেখাশুনা করার মাধ্যমে এই কাজ শুরু করতে পারেন। এটি শুরু করার আগে আপনার একবারে ভেবেনেয়া দরকার যে পরিমাণ বাচ্চাদের পরিচালনা করতে পারবেন।

বাচ্চাদের সকল সময় খেলাধুলায় ব্যস্ত রাখতে আপনি কিছু ক্রিয়াকলাপ নিতে পারেন। এই কাজটিতে আপনার নিজের বাসায় থেকে শুরু করার জন্য আপনাকে কোনও অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে না। আর এটার মাধ্যমে আপনি একটা ভাল উপার্জন করতে পারেন।

এখানেও আপনার কোনও অতিরিক্ত যোগ্যতার প্রয়োজন নেই। আপনি পিতামাতার সুবিধার্থে বেবিসিটিংয়ের সময়গুলি সেট করতে পারেন এবং বাচ্চাদের খাবার বা স্ন্যাকসও সরবরাহ করতে পারেন।

১০. বাসায় টিউটর এ কাজ। Work at Home Tutor

বাসায় টিউটর কাজে বা এই পেশাতেও আপনাকে কোনও অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে না কেবলমাত্র আপনার পড়াশোনার প্রতি অনেক ভাল আগ্রহ থাকতে হবে। তবে আপনি নিজের বাসায় থেকে টিউশনির ক্লাস নিতে পারেন।

আপনি যদি একটি বড় সমাজে বসবাস করে থাকেন তবে এখানেও আপনি খুব সহজেই শিক্ষার্থীদের পেতে পারেন। যেহেতু বাচ্চাদের অভিভাবকরা তাদের বাসার নিকটে টিউশন ক্লাস পছন্দ করেন। বাসায় টিউশন শুরু করার আগে আপনি কেবল আপনার প্রতিবেশী বা বন্ধুবান্ধবকে জানাতে পারেন। আপনি যে কোনও সাবজেক্টে বা বিষয়ে দক্ষ, আপনি সে বিষয়ে টিউশন নেওয়া শুরু করতে পারেন।

১১. ইউটিউব চ্যানেল। YouTube Channel

আপনি যদি আপনার কম্পিউটারে বা মোবাইলে ভিডিও তৈরি করতে পছন্দ করেন তবে ইউটিউবে একই ভিডিওগুলি আপনি আপলোড করতে পারেন তাতে করে আপনি একটা ভাল আয় করতে পারে। তবে আপনাকে এখানে কেবলমাত্র YouTube চ্যানেলে এ একজন ইউটিউবার হিসাবে সাইনআপ করতে হবে।

কোনও একটা নির্দিষ্ট বিষয়ে আপনাকে ভিডিও তৈরি করতে হবে যা অনন্যা ইউটিউবারদের থেকে একটু ভিন্ন্য হবে। এমন কিছুই ভিডিও যা অন্য কারও নেই। একজন মহিলার জন্য আপনি চাইলে আপনার বাসায় নিজের রান্নার ভিডিও তৈরি করতে পারেন, আপনার বন্ধুদের মধ্যে কিছু কথা বা হাস্যকর আলোচনা, স্ট্রিট ভিডিও, কোনও রেস্তোরাঁর ভিডিও বা কিছু রান্নার কাজে ব্যবহার থালার বিষয়, কিছু জায়গা যা আপনি কখনও কল্পনাও করতে পারেন।

১২. খাবার ডেলিভারি সেবা। Food Delivery Service

খাদ্য ডেলিভারি সেবা এটি বাসায় পছন্দ আর নতুন ধারণা যা আপনাকে একটি ভাল আয় দিতে পারে তা থেকে জনপ্রিয় আরেকটি কাজ। আজকাল রেস্তোঁরাগুলি তাদের গ্রাহকদের বাড়িতে খাবার ডেলিভারির জন্য ৩০% এরও বেশি অর্ডার পেয়ে থাকে।

অনেক ছোট রেস্তোঁরাগুলি এই সকল খাবার ডেলিভারি সেবা করে না কারণ তারা এটিকে বহন করতে পারে না এবং বড় রেস্তোঁরাগুলিকে বিভিন্ন সংখ্যক কর্মী নিয়োগের প্রয়োজন হয়ে থাকে কারণ গ্রাহকরা বিভিন্ন স্থান থেকে খাবার ডেলিভারি করে থাকেন। আপনি এই সুবিধা নিতে পারেন। প্রাথমিকভাবে, আপনি নিজে থেকে খাবার ডেলিভারি এটি একা করতে পারেন এবং আরও কাজ পেলে আপনি লোকদের খাবার ডেলিভারির জন্য নিয়োগ দিতে পারেন এবং বাসা থেকে এই সমস্ত খাবার ডেলিভারি কাজ আপনি পরিচালনা করতে পারেন।

১৩. রিয়েল এস্টেট এজেন্ট। Real Estate Agent

রিয়েল এস্টেট এজেন্টএই ব্যবসা এবং তাই সবাই পছন্দ করেন। রিয়েল এস্টেটের দাম সম্পর্কে আপনাকে বলার দরকার নেই এটা অনেক লাভবান ব্যবসা অল্পতে আপনি অনেক নগদ অর্থ আয় করে থাকেন। এমনকি আপনি যদি এক মাসে কমপক্ষে ১ টি ছোট সম্পত্তি/বাড়ি বিক্রি করতে পারেন, তবে আপনি $ ১০০০ ডলারের বেশি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন।ই কাজের জন্য আপনাকে কোনও রকম যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতার প্রয়োজন হয় না।

কেবলমাত্র আপনাকে যা করতে হবে তা হল আপনার নিকটস্থ অঞ্চলের অন্যান্য সমস্ত রিয়েল এস্টেট এজেন্টদের সাথে যোগাযোগ করা এবং লিজ বা বিক্রয়ের জন্য উপরক্ত সম্পত্তিগুলি খোঁজ খবর রাখা। তারপরে আপনি উপরক্ত সম্পত্তির বৈশিষ্ট্য সম্মপত্তির বিভিন্ন সাইটে বা শ্রেণিবদ্ধ ওয়েবসাইটগুলিতে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। গ্রাহকরা আপনাকে কল করবেন এবং উপরক্ত সম্পত্তির খোঁজ করার জন্য আপনার জায়গাটি দেখুন। আপনি চাইলে এই ব্যবসাটি একা করতে পারেন বা কর্মচারী রাখতে পারেন যাঁরা সম্পত্তিগুলি দেখাতে পারেন আপনার পরিবর্তে।

১৪. বাসায় থেকে অনলাইনে বিক্রয়ের কাজ। Online selling job from home

বাসায় থেকে অনলাইনে বিক্রয়ের কাজএটি আপনার জন্য আর একটি অত্যন্ত ভাল কাজ। আপনি ইতিমধ্যে অনলাইন শপিংয়ের মাধ্যমে অর্থ আয়ের এক বিশাল স্থান লাভ করেছেন। আপনি অনলাইন সাইট যেমন অ্যামাজন, ইবে, ফ্লিপকার্ট, স্ন্যাপডিয়াল এবং অন্যদের মতো বিভিন্ন পোর্টালের সাথে অনলাইনে বিক্রয় করতে পারেন এবং অনলাইনে পণ্য বিক্রয় করতে পারেন যা অন্যান্য ফিন্যান্সার তারা করে থাকে যাতে তার ভাল আয়ও করে থাকে।

কীভাবে কী বিক্রি করবেন অনলাইনে সে সম্পর্কে আপনি যদি দুঃচিন্তায় থাকেন তবে আপনার দুঃচিন্তার কোনও দরকার নেই কারণ এই অনলাইন ওয়েবসাইটগুলিতে হাজার হাজার বিক্রেতা রয়েছেন যাদের অনলাইনে কাজ করার জন্য তাদের পূর্বে কোনও ধারণা ছিল না তবে এখন তারা এই সাইটগুলিতে শীর্ষ বিক্রয়কারী হিসাবে কাজ করে খুব একটা লাভবান হচ্ছেন।

আপনি কেবল আপনার স্থানীয় বাজারে যান এবং কিছু পণ্য সংগ্রহ করুন এবং আমি নিশ্চিত যে আপনি এই শপিং সাইটে আপনার সংগ্রহ করা পণ্য আপনি বিক্রি করার চেষ্টা করতে পারেন এমন বেশ কয়েকটি ভাল পণ্য পাবেন আপনাদের লোকাল বাজারে।

১৫. রহস্য কেনাকাটা। Mystery Shopping

আপনি বড় নামী দামী ব্র্যান্ডের কোম্পানিতে রহস্য ক্রেতার কাজ করতে পারেন। রহস্যের ক্রেতা হিসাবে আপনাকে বিভিন্ন স্টোর, রেস্তোঁরা, থিয়েটার, হোটেল, হাসপাতাল ইত্যাদি দেখতে হবে এবং কিছু কেনাকাটা করতে হবে। কেনাকাটা করার সময়, আপনাকে তাদের কর্মীদের আচরণ বা ব্যবহার লক্ষ্য করতে হবে, ক্লায়েন্ট হিসাবে আপনার স্বাচ্ছন্দ্যের স্তর এবং কোম্পানির নির্দেশাবলী অনুসারে আপনার সামগ্রিক অভিজ্ঞতা যেমন পরীক্ষা করতে হবে।

আপনার সমস্ত কেনাকাটার জন্য ব্যয় কোম্পানির দ্বারা প্রদান করা হবে এবং কাজটি করার জন্য আপনিও কোম্পানির দ্বারা অর্থ উপার্জন করবেন। আপনার ক্রয় করা আইটেমগুলি ঙ্কোম্পানি আপনাকে অনেক সময় দিয়ে দেয়। তবে কিছু রহস্য শপিং কোম্পানি আছে, আপনি একবার সাইনআপ ফ্রি করে দিলে আমরা আপনাকে এখান থেকে কাজ পাঠিয়ে দেয়া হবে।

১৬. বাসায় বীমা এজেন্টর কাজ। Work at Home Insurance Agent

বাসায় থেকে বীমা এজেন্টর কাজ করাও এটি একটি ভাল কাজ। একটি বীমা এজেন্ট হিসাবে কাজ করতে আপনাকে বীমা এজেন্টের পরীক্ষা দিতে হবে এবং কেবল তখনই আপনি বীমা কোম্পানিতে বীমার এজেন্ট হিসাবে কাজ করতে পারেন। আমাদের জীবনের প্রত্যেকের জন্য বীমার প্রয়োজন অনেকাংশে এখন দরকারী একটা মাধ্যম এবং আমরা সর্বদা একটি ভাল বীমার এজেন্ট খুঁজি। একটি বীমা এজেন্ট হিসাবে, আপনি গ্রাহকদের কাছে বীমাটির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে পারেন যেন তার আপনার প্রতি উৎসাহিত হয়ে তার বীমা করে।

এই বীমা এজেন্টর কাজটিতে আপনার কিছু ভাল যোগাযোগ করার জন্য দক্ষতা থাকা উচিত তবেই আপনি আপনার বীমার জন্য নতুন নতুন গ্রাহক পেতে পারবেন। বীমা এজেন্টর কাজের জন্য আপনাকে একটা সঠিক নীতি গ্রহণের জন্য তাদের বোঝাতে হবে। এখানেও আপনি আপনার প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজন এবং বন্ধুদের সাথে শুরু করতে পারেন। অবশ্যই আপনি এখান থেকে একটা ভাল নগদ অর্থ আয় করতে পারেন।

১৭. বাসায় ট্রান্সক্রিপশনবিদ হন। Become a Home Transcriptionist

বাসায় ট্রান্সক্রিপশনবিদ হনকারণ এখন অনেকে আনুবাদ করে কাজের একটা ভাল উৎস বের করেছে। তবে একজন অনুলিপি লেখক বা তাঁর সরাসরি কথা বা অডিও রেকর্ডিং শুনে সে এইগুলি তার নিজের টাইপিং দক্ষতাকে কাজে লাগানোর মাধ্যমে তা টাইপ করে। আপনি এই কাজটি করতে চাইলে আপনাকে টাইপিঙয়ের উপর প্রশিক্ষণ নিতে হবে বা নেওয়া দরকার আছে।

বিভিন্ন ধরণের ট্রান্সক্রিপশনবিদ রয়েছে যেমন সাধারণ, চিকিত্সা এবং অন্যান্য এবং আপনার আয়ের জন্য এই কাজটি সম্পাদন করার ধরণ এবং আপনার দক্ষতার উপর নির্ভর করে।

১৮. বিউটি পার্লারের কাজ। Beauty Parlour Job

আজকাল নিজের সৌন্দয্যকে সকলের সামনে ফুটিয়ে তুলতে চাই। তাই সকলেই বিউটি পার্লারে যায় এবং প্রত্যেকেই সুন্দর দেখতে চায়। বাসায় থেকে বিউটি পার্লারের কাজ শুরু করা এটিও একটি ভাল কাজ। বাসায় থেকে বিউটি পার্লার শুরু করার আগে আপনাকে দক্ষতার জন্য একটি বিউটিশিয়ান কোর্স করতে হবে যা ৩-৪ মাসের এবং পরে আপনাকে একটা বিউটি পার্লারে যোগদান করতে হবে কারণ আপনার বিউটিশিয়ান হিসাবে কাজ করার অভিজ্ঞতা প্রয়োজন।

এছাড়াও, কিছু বিনিয়োগ প্রয়োজন হবে, তবে এখানে আপনি বেশ অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এখানে আপনাকে ভাল ব্যবহার করতে হবে কাস্টমারের সাথে। আর আপনার মুখের প্রচারও দরকার তবে আপনি কেবল আপনার প্রতিবেশী এবং বন্ধুবান্ধবকে অবহিত করতে পারেন যেন তারা উৎসাহিত হয়ে আপনার বিউটি পার্লারে সেবা নিতে আসে।

১৯. বাসা থেকে প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শ। training & consultancy from home

আপনি যদি কোনও বিষয়ে অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন বা কিছু দক্ষতা আছে আপনার যা অনেক লোকেরা শিখতে চায়। তবে আপনি চাইলে তা আপনার নিজের বাসায় থেকে প্রশিক্ষণ বা পরামর্শ দেওয়া শুরু করতে পারেন।

আপনি ইংরেজি, নাচ, গিটার, দাবা, কম্পিউটারের জন্য প্রশিক্ষণ প্রদান করতে পারেন বা ভ্রমণের জন্য পরামর্শ, স্টক বা বাসা বাড়ি কেনার জন্য বা আপনার জানা সমস্ত কিছু পরামর্শ করতে পারেন।

২০. ক্যাটারিং সেবা। Catering Service

যদি রান্না বান্না করা আপনার আবেগ হয় তবে অবশ্যই আপনি আপনার বাসা থেকে একটি ক্যাটারিং সেবা বা একটি টিফিন সেবা শুরু করার কথা ভাবতে পারেন, কারণ এটিতে কিছু অর্থের জোগান দিতে পারে। তবে এখন থেকে সকলেই খুব ব্যস্ত এবং কর্মজীবী ​​মহিলাদের পক্ষে নির্ধারিত সময়ে তাদের বাসা থেকে খাবার রান্না করে নিয়ে আসা সম্ভব নয়।

এছাড়াও শহরে অনেক ব্যাচেলর রয়েছে যারা তাদের নিজেদের খাবার রান্না করতে জানেন না। এই সমস্ত লোকের জন্য আপনি খুব কম মূল্যে সেবার জন্য একটি কেটারিং সেবা বা একটি টিফিন সেবার কাজ শুরু করতে পারেন। এমনকি আপনি যে কোনও ডিশের পাত্র বা টিফিন ক্যারের বক্স দিয়ে শুরু করতে পারেন। আপনি বাসা থেকে শুরু করার সাথে সাথে এখানে আপনার কিছু অর্থ বিনিয়োগের প্রয়োজন হতে পারে, তবে তা বেশি অর্থ নয় বিনিয়োগ করতে।

আপনি আপনার নিকটস্থ প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজন এবং সেই শ্রমজীবী ​​লোকদেরও আপনার সেবাদি সম্পর্কে অবহিত করতে পারেন যাদের জন্য এই সেবাটি অত্তান্ত প্রয়োজন। আপনার যখন একার পক্ষে এই সেবা দিতে যদি সমস্যা হয় তবে আপনি আরও অর্ডার পেলে আপনি কোনও সহায়ক নিয়োগ করতে পারেন।

২১. বাসায় নেটওয়ার্কার এ কাজ করুন। Work at Home Networker

আপনার যদি বাসায় যোগাযোগের দক্ষতা, বন্ধুত্বপূর্ণ প্রকৃতি এবং বড় বন্ধুবান্ধব বৃত্ত থাকে তবে অবশ্যই আপনি কোনও ভাল নেটওয়ার্ক বিপণন কোম্পানি দিয়ে শুরু করতে পারেন। কোনও নেটওয়ার্ক বিপণন কোম্পানিতে যোগদানের পরে আপনার বন্ধুদের এবং পরিবারকে এই ব্যবসায় নিয়ে আসা দরকার খুবই প্রয়োজন। এতে করে আপনার কোম্পানিতে একটা প্রভাব বিস্তার করা সম্ভাব।

আপনার নেটওয়ার্কের অধীনে যোগদানকারী প্রত্যেকে এবং প্রত্যেক সদস্যের জন্য (প্রত্যক্ষ বা অপ্রত্যক্ষভাবে) আপনাকে একটি আকর্ষণীয় কমিশন দেওয়া হবে, এটা আপনার কাজের প্রচার ও প্রসারের জন্য মূল্য হিসাবে। আপনি আপনার কাজের প্রচারের মাধ্যমে আপনার নেটওয়ার্কও অনেক বড় হবে, আর আপনার কমিশন আরও বড় হবে। আপনি বাসায় বসে থেকে আপনার এই কাজটি ভাল ভাবে করতে পারেন। আপনার নেটওয়ার্কটি সারা দেশে প্রসারিত করতে আপনি অনলাইনে আপনার কোম্পানিকে নিজের দক্ষতার সাথে প্রচার করতে পারেন।

আপনি আপনার বাসায় থেকে বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে খুব ভাল ইনকাম করতে পারেন।

বাসায় থেকে উপরের ২১ টি কাজ ছাড়াও, আপনি এই অনলাইন কাজগুলি যা আপনার অতিরিক্ত সময়ে বাসা থেকে কাজ করে $ ১০০০ ডলারেরও বেশি অনলাইনে ফিন্যান্সিং করে ইনকাম করা এখন অনেক সহজ কাজ।

4 COMMENTS

    • আপনাকে আরও অনেক ধন্যবাদ। আমার সাইট ভিজিট করে কিছু জানার জন্য ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here